March 30, 2020

‘নির্বাচনে জয়ী হবার জন্যই অংশগ্রহণ করেছি’- ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ঢাকা সিটি নির্বাচনে যে মিছিল হচ্ছে সেখানে অনেক বেশি মানুষ অংশগ্রহণ করছে। তাদেরকে যদি আমরা সংহত করতে পারি এবং আন্দোলনের দিকে নিয়ে যেতে পারি তাহলে নিশ্চয়ই আমরা সফল। আর সেই কারণেই আমাদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা। আমরা বিশ্বাস করি, নির্বাচনে জয়ী হবার জন্যই আমরা অংশগ্রহণ করেছি। মেহেরপুর সীমান্তে বাংলাদেশিকে তুলে নিয়ে গেছে বিএসএফ১৫ টাকার যে ফল খেলে আপনাকে মি’লনের আগে আর উ’ত্তেজক ট্যাবলেট খেতে হবে না

শুক্রবার ১৭ জানুয়ারী জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত ‘নির্বাচনে আস্থাহীনতা, ইভিএম’র ব্যবহার: বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা প্রতি মুহূর্তেই আন্দোলনের মধ্যে আছি। আমরা যখন ভোটে যাই, সেটাও আন্দোলনে অংশ, আমরা যখন এখানে আলোচনা করি সেটাও আন্দোলনের অংশ। সবকিছু নিয়ে আমরা একটা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করছি। ভুল ত্রুটি আছে থাকতেই পারে। তাও প্রতি মুহূর্তে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি সফলতার জন্য। তিনি বলেন, নির্বাচনের সংকটই সংকট নয়, সংকট সামগ্রিকভাবে সারাদেশেরই এমন।বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একে একে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো অত্যন্ত সুকৌশলে, সুপরিকল্পিতভাবে, সুচিন্তিতভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে। তাদের মূল লক্ষ্য ছিল একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তন করা।

ফখরুল বলেন, বিএনপির শুরু থেকে একটা লিবারেল ডেমোক্রেটিক পলিটিকাল পার্টি। এ পার্টির যে নিজস্ব চরিত্র আছে, সে চরিত্র নিয়ে সামনের দিকে আগাচ্ছে। বিশ্ব রাজনীতির যে পরিবর্তন হয়েছে সেগুলোকে সামনে রেখে আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে। হটকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে সামনে আগানো যাবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই দানবকে পরাজিত করতে হবে। এই কথাটি আমরা সব জায়গায় বলেছি। সুখে থাকার, আরামে থাকার মানুষগুলো রাস্তায় নামে না। রাস্তায় নামে কর্মীরা।

গোলটেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবি পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক শওকত মাহমুদ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *